1. admin@dainikdeshkantho.com : admin : Humayun Kabir
মঙ্গলবার, ০৪ অক্টোবর ২০২২, ১০:৫৫ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
চাটখিল পৌরসভা ও খিলপাড়া হিন্দু সম্প্রদায়ের মাঝে নগদ অর্থ বিতরণ করেন- জাহাঙ্গীর আলম মাদারীপুরে নেশা দ্রব্য খাইয়ে শিক্ষার্থীকে ধর্ষণের অভিযোগ মধুখালীতে জাতীয় কন্যা শিশু দিবস উপলক্ষ্যে র‍্যালী ও আলোচনা সভা নিকলীতে জাতীয় কন্যা দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত চীন এখনই তাইওয়ানে হামলা করবে না: মার্কিন প্রতিরক্ষা মন্ত্রী ফরিদপুরে জেলা পর্যায়ে শ্রেষ্ঠ উপজেলা নির্বাহী অফিসার নির্বাচিত হলেন মোঃ আশিকুর রহমান চৌধুরী মধুখালীতে গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্ণামেন্টের উদ্বোধন বিএসএফআইসি চেয়ারম্যানের ফরিদপুর চিনিকলে আখরোপন কার্যক্রমে অংশগ্রহণ ও মত বিনিময় সভা আলফাডাঙ্গায় জাতীয় উৎপাদনশীলতা দিবস পালিত কানাইপুরে বিভিন্ন পূজা মন্ডপ পরিদর্শন ও কুশল বিনিময় করলেন ইউপি চেয়ারম্যান

আলহাজ্ব আঃ খালেক চেয়ারম্যানের ৭ম তম মৃত্যুবার্ষিকী পালন

  • আপডেট সময় : মঙ্গলবার, ৩০ আগস্ট, ২০২২
  • ৪৭ বার পঠিত

 

সেক লাবলু , ফরিদপুর প্রতিনিধি:

 

ফরিদপুর সদর উপজেলার গেরদা ইউনিয়নের বিশিষ্ট শিক্ষা অনুরাগি ও গেরদা ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান মরহুম আলহাজ্ব আঃ খালেক চেয়ারম্যানের ৭ম তম মৃত্যুবার্ষিকী।

দিনটি পালন উপলক্ষ্যে আলহাজ্ব আঃ খালেক ডিগ্রী কলেজ, উচ্চ বিদ্যালয় এবং আলহাজ্ব আঃ খালেক চেয়ারম্যান প্রাথমিক বিদ্যালয়সহ বিভিন্ন সংগঠন নানা কর্মসূচি পালন করে। এছাড়া পারিবারিক ভাবে দিনটি পালনে বিভিন্ন মসজিদ ও মাদ্রাসায় দোয়া মাহফিলের আয়োজন করেন।

আলহাজ্ব আঃ খালেক ফরিদপুর সদর উপজেলার গেরদা ইউনিয়নের এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে ১৯৩৫ সালের ২১ ফেব্রুয়ারী জন্মগ্রহণ করেন। মানুষের ভোটে নির্বাচিত হয়ে তিনি জনপ্রতিনিধির চেয়ারে বসে গ্রামকে সমৃদ্ধি করার সংগ্রামে কাজ করেছেন।

জনকল্যাণে প্রতিষ্ঠা করেছেন আলহাজ্ব আব্দুল খালেক ডিগ্রী কলেজ, আলহাজ্ব আব্দুল খালেক উচ্চ বিদ্যালয়, খালেক চেয়ারম্যান বাজার সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়,
খালেক চেয়ারম্যান বাজার পোস্ট অফিস, আলহাজ্ব
আব্দুল খালেক চেয়ারম্যান বাজার, আব্দুল জব্বার ফোরকানিয়া মাদ্রাসা, দুটি গোরস্থানসহ অসংখ্য শিক্ষা ও অবকাঠামো উন্নয়ন।

১৯৬৯ সালে এলাকার মানুষের দাবির প্রেক্ষিতে তিনি গেরদা ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে অংশ নেন। ব্যাপক ভোটে নির্বাচিত হয়ে ১৯৯২ ইং সাল পর্যন্ত পর্যায়ক্রমে ৫ বার গেরদা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়ে তিনি এলাকার উন্নয়নে নিবেদিত ভাবে কাজ করেছেন।

তিনি কেবলই শিক্ষার উন্নয়ন ও মানুষের জীবনযাত্রার উন্নয়নে কাজ করেছেন। নারীদের কর্মসংস্থান ও অধিকার আদায়েও তিনি ছিলেন সচেতন। মহিলা রোড পরিচিত যে সড়কটি তিনি তৎকালীন নারী শ্রমিক দিয়ে সড়কটি নির্মাণ করিয়েছিলেন, তাই জায়গাটির নাম মহিলা
রোড নামে পরিচিতি লাভ পায়।

তিনি তার যৌবনকালের সংকল্পকে মানুষের উন্নয়ন আর কল্যাণে নিয়োজিত করেছিলেন। জনপ্রতিনিধি নির্বাচিত হয়ে তিনি স্ত্রী পুত্রদেরও সময় দেননি। শুধু মানুষের কাজ নিয়ে ছুটে বেড়াতেন বিভিন্ন দরবারে। তিনি ব্যক্তি জীবনে শিক্ষার প্রয়োজনীয়তা উপলব্ধি করেন। গ্রামের হতদরিদ্র মানুষদেরকে সু-শিক্ষিত করার মধ্য দিয়ে জীবন গঠনের তাগিদে তিনি বহু শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলেন।

তিনি কৃষ্ণারডাঙ্গি উচ্চ বিদ্যালয়ের ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি ছিলেন অনেকদিন। হাবেলী দয়ারামপুর সরকারী
প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি ছিলেন। বিসমিল্লাহ শাহ দরগাহ কমিটির সভাপতি ছিলেন অনেকদিন।

মরহুম আব্দুল খালেক চেয়ারম্যানের পিতা : আব্দুল জব্বার মাতুব্বর এলাকার সমাজ সেবক এবং সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবার মাতা-আমিরুন্নেসা গৃহীনি, মৃত্যুর সময়ে স্ত্রী আমেনা বেগম, এক মেয়ে ও চার ছেলে রেখে তিনি ৩০ আগস্ট ২০১৫ ইং সালে ৮০ বছর বয়সে মৃত্যু বরণ করেন।

ফরিদপুরের মানুষের কাছে এই মানুষটি বেঁচে থাকুক কর্মউদ্দিপনা আর শিক্ষা অনুরাগের প্রভাতফেরী হিসেবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

© All rights reserved © ২০২২ স্বাধীন বার্তা ৭১
Theme Customized By Theme Park BD